কাতারে আজ থেকে গ্রীন লিস্ট ছাড়া দেশের যাত্রীদের জন্য বা’ধ্যতামূলক হোটেল কোয়ারেন্টাইন

রবিবার থেকে শুরু করে, যেসব দেশ ‘গ্রিন লিস্টে’ নেই সেসব দেশ থেকে কাতারে আগত যাত্রীদের মনোনীত হোটেলগুলির একটিতে কোয়ারেন্টাইন থাকতে হবে।ফলে এখন থেকে গ্রীন লিস্টে থাকা ১৮ টি দেশ বাদে সকল দেশের যাত্রীদের হোটেল কোয়ারেন্টাইন বাধ্যতামূলক।

“ভ্রমণ নীতি থেকে কাতারে পূর্বে ঘোষিত প্রত্যাবর্তনের কথা বিবেচনা করে সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে যে, হোটেল কোয়ারেন্টাইন পূর্ববর্তী কোন ছাড়ই গ্রিন তালিকায় নেই এমন দেশগুলি থেকে কাতারে ফিরে আসা লোকদের জন্য আর আবেদন করবে না।

অর্থাৎ আগে কেউ কোয়ারেন্টাইন ছাড় পেলেও তাদের এখন কোয়ারেন্টাইন নিয়ম মানতে হবে,
এই নতুন নীতিটি রবিবার থেকে কাতারের সমস্ত প্রবেশিকা এবং প্রবাসীদের জন্য প্রযোজ্য হবে, ”জনস্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় (এমওএইচ) একটি টুইট বার্তায় জানিয়েছে।

এই সিদ্ধান্তের ফলে যারা কাতারে প্রবেশের পাশাপাশি আগে হোটেল পৃথকীকরণ থেকে অব্যাহতি পেয়েছে তাদেরও প্রভাব ফেলবে।“জনস্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ও নিশ্চিত করেছে যে, গ্রিন লিস্টে কাউন্সিল থেকে আগত লোকদের জন্য কাতারে ভ্রমণ ও প্রত্যাবর্তনের জন্য বিদ্যমান কোয়ারেন্টাইন নীতি কার্যকর থাকবে।

মন্ত্রণালয় এই সিদ্ধান্তগুলি পর্যালোচনাধীন রাখবে এবং কাতারে এবং বিশ্বের অন্যান্য অঞ্চলে জনস্বাস্থ্যের সূচকের ভিত্তিতে উপযুক্ত হলে তা আপডেট করবে। ”

এমওএইচএইচ ওয়েবসাইটে প্রকাশিত গ্রিন লিস্টে বর্তমানে নিম্নলিখিত ১৮ টি দেশ রয়েছে: ওমান, ব্রুনাই দারুসালাম, থাইল্যান্ড, চীন (এ। হংকং এসএআর – চীন; বি মাকাউ এসএআর – চীন), ভিয়েতনাম, মালয়েশিয়া, দক্ষিণ কোরিয়া ,

সিঙ্গাপুর, জাপান, মিয়ানমার, মালদ্বীপ (কেবল ‘নিরাপদ ভ্রমণ বুদ্বুদ’ প্যাকেজ), অস্ট্রেলিয়া, নিউজিল্যান্ড, মেক্সিকো, কিউবা, মরিশাস, আইসল্যান্ড এবং আয়ারল্যান্ড

অ-সবুজ দেশগুলির আগমনের আগে ইক্সপ্লোর কাতার ওয়েবসাইটের মাধ্যমে তাদের হোটেল থাকার ব্যবস্থা বুক করা উচিত।