Wednesday , September 22 2021

জম’জ স’ন্তান হওয়ার সম্ভাবনা বেশি থাকে যে সব না’রী’র জে’নেনিন!

জমজ শিশুদের নিয়ে আমা’দের মধ্যে এক কৌতূহল কাজ করে।মজার ব্যাপার হচ্ছে যে জমজ শিশুর জন্ম বেড়েই চলেছে।১৯৮০ সালের পরিসংখ্যান অনুযায়ী সদ্য ভূমিষ্ঠ প্রতি ৫৩ শিশুর ,মধ্যে একজন জমজ ‘হতো।২০১৯ সালের পরিসংখ্যানে বেড়ে দারিয়েছে প্রতি ৩০ জানে একজন।

গবেষণায় বলা হয়েছে, যেসব নারীর উচ্চতা বেশি তাদের জমজ সন্তান জন্ম দেয়ার সম্ভাবনা বেশি থাকে। গবেষণায় আরও বলা হয়েছে মায়ের উচ্চতার স’ঙ্গে জমজ সন্তানের জন্ম’দানের সম্পর্ক রয়েছে।

কারণ আমা’দের শরীর বেড়ে ওঠার জন্য বিশেষ কিছু বি’ষয় কাজ করে।জেক বলা হয় গর্ত ফ্যাক্টর।যা ইনসুলিন নামের এক বিশেষ প্রোটিন।এই ইন্সুলিন বোন সেল বৃ’দ্ধিকে নিয়ন্ত্রিত করে।একই স’ঙ্গে মেয়েদের লম্বা হওয়ার প্রবণতা ও যমজ সন্তান জন্মানো বি’ষয়টি নিয়ন্ত্রণ করে

সু’স্থ থাকতে চান? তবে বাড়ি থেকে এখনই বি’দা’য় করুন এই ১০টি জিনিস

আজকাল আমর’া সু’স্থ থাকার জন্য অনেক কিছুই করি | যেমন ম’শ’লাদার ও ভা’জা খাবারের বদলে স্বা’স্থ্য’কর খাবার খাই‚ জি’মে যাই‚ যো’গা করি‚ তা’ড়াতা’ড়ি ঘু’মিয়ে প’ড়ার চে’ষ্টা করি‚ ইত্যাদি | কিন্তু জানেন কি আমা’দের বাড়িতেই এমন অনেক অ’স্বা’স্থ্যকর জিনিস আছে যার থেকে আমা’দের শ’রীর খা’রা’প ‘হতে পারে | তাই সবার আগে ওই অ’স্বা’স্থ্য’কর জিনিসগু’লোকে বাড়ি থেকে বি’দা’য় করুন |

১) খাবার রাখার প্লা’স্টি’কের স’রঞ্জা’ম ও বোতল :যদি হেলদি থাকতে চান তাহলে ভু’লেও প্লাস্টিকের বোতল থেকে জল খাবেন না বা প্লাস্টিকের স’রঞ্জা’মে খাবার জিনিস রাখবেন না |

প্লাস্টিকের জিনিসপত্র ব্যবহার করলে Bisphenol A (BPA), Bisphenol S (BPS) এবং Phthalates-এর মতো স্মূ’হ ক্ষ’তি’কা’রক প’দা’র্থের স’ঙ্গে এ’ক্সপো’জা’রের স’ম্ভ’বনা বৃ’’দ্ধি পায় |

BPA এক ধরণের ক’ম্পা’উন্ড যা প’লিকা’র্বো’নেট এবং প্লাস্টিক তৈরি করতে কাজে লাগে | এটা আমা’দের শরীরের জন্য খুবই ক্ষ’তি’কর |২) অ্যা’ন্টি ব্যা’ক’টে’রি’য়াল সাবান ও ডি’টার’জে’ন্ট :

আপনি যদি নিয়মিত অ্যা’ন্টি ব্যা’ক’টে’রিয়াল সাবান ও ডি’টা’রজে’ন্ট কিনে থাকেন এই ভেবে যে এগু’লো আপনার শরীরের জন্য ভালো‚ তাহলে আপনি ভু’ল ভাবছেন | এই হ্যা’বিট তা’ড়াতা’ড়ি পা’ল্টে ফেলুন |

অ্যা’ন্টিব্যা’ক্ট’রিয়াল সা’বা’ন ও ডি’টা’রজে’ন্টে এক ধরণের কে”মি’ক্যা’ল থাকে যার নাম ট্রা’ইক্লো’সা’ন‚ যা খুবই ক্ষ’তি’কা’রক | এছাড়াও এতে ক্ষ’তি’কা’রক Butoxyethanol, BPA, D-limonene, Dyes, Parabens, Phthalates এবং Chloride থাকে |

৩) রু’ম ফ্রে’শ’নার :রু’ম ফ্রে’শনার বা এয়ার ফ্রে’শ’নারে Phthalates বলে এক ধরণের কে’মি’ক্যাল থাকে যার সং’স্প’র্শে এলে ক্যা’ন্সা’র বা অন্য শা’রী’রিক অ’সু’স্থতা ‘হতে পারে |যদি রুম ফ্রে’শ’নার ব্য’বহার করতেই হয় তাহলে নিজেই তা ঘরে তৈরি করে নিন | এটা তৈরি করতে একটা বড় পাত্রে জ’ল ভ’রুন | এতে লেবু‚ লেবুর খোসা বা’টা‚ ল্যা’ভেন্ডা’র‚ দা’রচি’নি‚ মি’ন্ট‚ রো’সমে’রী‚ তেজপাতা এবং স্টার অ্যা’নি’স সব একস’ঙ্গে মি’শি’য়ে জল ফু’টি’য়ে নিন | দেখবেন সু’ন্দর সু’গ’ন্ধে ভ’রে উঠবে আপনার বাড়ি |

৪) বাসন মাজার স্প’ঞ্জ :প্রতি দু‘স’প্তাহ অন্তর বা’সন মাজার স্প’ঞ্জ ( স্ক’র্চ বাই’ট ) পা’ল্টে ফেলুন | বিশেষজ্ঞরা মনে করেন একটা স্প’ঞ্জে’র প্রতি বর্গক্ষেত্রে ১০ মিলিয়ান ব্যা’কটে’রিয়া থাকে |স্প’ঞ্জে’র ব’দ’লে সুতির কাপড় ব্যবহার করতে পারেন | যেহেতু কাপড় স্প’ঞ্জে’র থেকে পাতলা হয় তাই তাড়াতাড়ি শু’কি’য়ে যায় | ফলে ‘ব্যা’ক’টেরি’য়া কম জ’ন্মা’য় | তবে কাপড় ব্য’ব’হার করলেও তা রোজ ভালো করে সা’বান দিয়ে ধুতে হবে |

৫) পুরনো ন’নস্টিক বাসন : এই ধরণের বাসনে রান্না করতে সুবিধা হয় ঠিকই কিন্তু একটা সময়ের পর অবশ্যই পা”ল্টে ফেলুন | নিয়মিত ব্যবহারের ফলে নন স্টিক বাসনের ওপরের টে’ফ’লন কো’টিং উঠে যায় | এই ধরণের বাসনে যখন রান্না করা হয় তখন ট’ক্সি’ক গ্যা’স এবং পা’র্টিকল রান্নাঘরের মধ্যে মি’শে যায় | এর থেকে ফ্লু’ এর স’ম্ভা’বনা অনেকটা বে’ড়ে যায় |৬) ক’ন্ট্যা’ক্ট লে’ন্স রাখার পাত্র :এমনিতে ক’ন্ট্যা’ক্ট লে’ন্স চো’খের জন্য সেফ এবং আরা’ম’দায়ক |

কিন্তু একে যদি নিয়মিত পরিষ্কার না করেন তাহলে চোখের বিভিন্ন অসুখ ‘হতে পারে এমনকী দৃ’ষ্টিশ’ক্তি অ’ব’ধি হা’রা’তে পারেন | ক’ন্ট্যাক্ট লে’ন্স ব্যবহার করার সময় আমর’া অনেকেই ক’ন্ট্যা’ক্ট লে’ন্স কে’স পরিষ্কার করি না | তাই অ’পরি’ছন্ন কেস চোখের ই’নফে’ক’শনের প্রাথমিক কারণ |এটা এড়াতে সব সময় সা’বা’ন দিয়ে হাত ধু’য়ে ক’ন্ট্যা’ক্ট লে’ন্স ধরুন | নিয়মিত কে’স প’রি’ষ্কার করুন আর ভালো করে শু’কি’য়ে রাখু’ন |এছাড়াও অন্য ম্যা’নু’ফ্যাক’চারের ডি’স’ইনফে’ক্টিং স’লি’উশন ব্যবহার করবেন না |

আর ক‘দিন অন্তর কে’স পা’ল্টে ফেলুন | ৭) কে’মি’ক্যাল এ’নরি’চড ক’স’মে’কস :শ্যা’ম্পু হোক বা লিপস্টিক বা নেল পলিশ বা সা’ন’স্ক্রিন‚ পু’রুষ ও ম’হিলারা যে সব ক’সমেটিকস ব্যবহার করে তাতে বহু রকমের ক্ষ’তিকা’র’ক কে’মি’ক্যাল থাকে | অনেক ক’স’মেটি’কসে যেমন ফাউন্ডেশন‚ পা’উডার‚ ব্লা’সা’র‚ মা’স্কা’রা‚ আই লাইনার‚ আই শ্যা’ডো এবং লিপস্টিকে Lead, Beryllium, Thallium, Cadmium, Arsenic ইত্যাদি থাকে যা খুবই ক্ষ’তি’কারক |

কসমেটিকস কেনার আগে ভালো করে দেখে নিন | যাতে মিনারেল বেস’ড পি’গমে’ন্টস এবং প্রাকৃতিক তেল আছে সেই ধরণের জিনিস ব্যবহার করুন | যে সা’বান ও শ্যা’ম্পুতে Triclosan থাকে সেগু’লো এ’ড়িয়ে চলুন |৮) পুরনো টুথব্রাশ :বার বার ব্যবহারের ফলে টু’থব্রা’শের ব্রি’সে’লস ন’ষ্ট হয়ে যায় | পুরনো টু’থব্রা’শ দিয়ে দাঁ’ত মা’জলে জ’মে থাকা প্লা’ক এবং Calculus প’রিষ্কার হয় না | তাই দাঁ’তের ক্ষ’তি এ’ড়া’তে পু’রনো দাঁ’ত’ মা’জার ব্রা’শ ফেলে দিন | প্রতি তিন মাস অ’ন্তর ব্রা’শ পা’ল্টান |

৯) বহু পুরনো রানিং শু :দৌ’ড়ানো‚ জ’গিং বা হাঁ’টা শরীরের জন্য ভালো কিন্তু ক্ষ’য়ে যাওয়া জুতো পরে তা যদি করেন তাহলে তা আপনার পায়ের জন্য খুবই ক্ষ’তি’কা’রক | ক্ষ’য়ে যাওয়া জুতো কম প্রে’সার অ্যা’বসর্ব করে ফলে পায়ের মা’সল‚ হা’ড়ের ওপর প্রে’সার প’ড়ে | চো’ট লা’গার সম্ভাবনাও অনেকটা বে’ড়ে যায় |১০) স্ট্রে’চড আউট ব্রা :সময়ের স’ঙ্গে এবং নিয়মিত ব্যবহারের ফলে অ’ন্তর্বা’স একসময় লু’জ হয়ে যায় | এটা কিন্তু শ’রী’রের জন্য খুব ক্ষ’তি’কা’রক |

প্রতি ছ্মাস অন্তর অ’ন্তর্বা’স পরিবর্তন করতে হবে | এই ধরণের ব্রা ব্যবহার করার ফলে শ্যা’গিং ব্রে’স্ট‚ গ’লায় ও পি’ঠে ব্য’থা হওয়ার সম্ভাবনা অনেকটা বেড়ে যায় |এ ছাড়াও নিচের নির্দেশগু’লো মে’নে চলুন :পুরনো জামাকাপড় জ’মিয়ে না রেখে তা ডো’নেট করে দিন ফ্রিজে রাখা দুদিনের বেশি বাসি খাবার খাবেন না |ফ্রি’জে যদি কো’ল্ড’ড্রিংক’সের বোতল থাকে তা স’ত্ত্বর ফেলে দিন | এমনকী ডা’য়েট সো’ডাও সমান ক্ষ’তি’কারক |ক্ষ’তি’কা’রক কে’মিক্যা’ল দিয়ে তৈরি ক্লি’নিং প্র’ডা’ক্ট ব্যবহার না করে বে’কিং সো’ডা‚ সা’বান‚ ভি’নিগা’র‚ লেবু দিয়ে জিনিসপত্র পরিষ্কার করুন |যে সব ও’ষু’ধ এ’ক্সপা’য়া’র হয়ে গেছে তা ফেলে দিন