Wednesday , September 22 2021

যে কারনে বৌ’দি’দে’র প্রতি ছেলেরা আকর্ষিত হয় জেনে নিন!

বর্তমানে ছেলেরা বয়সে বড়ো ম’হিলা অথবা বৌদিদের প্রেমে পড়ছে। বিশেষত বৌদিদের প্রতি বেশি আকর্ষিত হচ্ছে এবং বৌদিদের সাথে স’ম্পর্কও করছে।

তার উপর পরকীয়াও বৈধ যার কারনে বৌদিদের প্রতি আসক্তি বেড়ে যাচ্ছে।ছেলেরা এখন বিবা’হিত ম’হিলাদের প্রতি বেশি ঝুঁকে পড়েছে।চলুন দেখে নেওয়া যাক যে সমস্ত কারনের জন্য ছেলেরা বৌদিদেরকে বেশি পছন্দ করেন-

১) ম্যাচিউরিটি ও বয়স ২০ থেকে ২৫ বছর বয়সের মেয়েরা দেখতে সুন্দর, তাদের চেহারার সুডৌল গঠন সবাইকে আকর্ষন করে।রোমান্স এর অনুভূতি থাকে তাদের মধ্যে।প্রথম স’ম্পর্কে আসা মেয়েকে অনেক কিছু শেখাতে হয় কিন্তু এক্ষেত্রে বৌদিরা খুব পটু হয়।তারা জানে একটা ছেলে তার কাছ থেকে কি চায়?কেন তার সঙ্গে স’ম্পর্ক করতে চাইছে।

২) অ’ভিজ্ঞতা: সবচেয়ে বড়ো দিক হলো বিবা’হিত ম’হিলারা সাধারণ মেয়েদের চেয়ে অনেক বেশি অভিজ্ঞ। এবং এরা ছেলেদের চাওয়া পাওয়া সবকিছুর উপর গুরুত্ব দেয় ও তাদের সমস্যা সমাধানের চেষ্টা করে।অন্যদিকে কমবয়সী মেয়েরা আবেগ তাড়িত হয়ে ছেলেদের জীবনে প্রায়ক্ষেত্রে নানা সমস্যা তৈরি করে থাকে।ছেলেদের খুশী ও চাওয়া-পাওয়ার দিকে তেমন নজর দেয়না।

৩) নেকামি: অল্পবয়সী মেয়েরা একটু প্রেমের ক্ষেত্রে ন্যাকা স্বভাবের হয়ে থাকে।কোন জায়গায় কোন কথা বলতে হবে তার কোনো ধারনা নেই এদের।অপরদিকে বৌদিরা চট করেই ছেলেদের মনে কি চলছে বুঝতে পারে এবং ন্যাকামি একদম করেনা।এছাড়াও সঠিক স্থানে সঠিক কথা বলার ধারনাও রয়েছে যার কারনে ছেলেরা বেশি বিবা’হিত ম’হিলাদেরকেই পছন্দ করেন।

৪) যৌ’নতা: সবচেয়ে বড়ো একটি দিক হল যৌ’নাকাঙ্ক্ষা। যৌ’নতার ব্যাপারে বিবা’হিত ম’হিলারা বিছানায় বেশি সুখ দিতে পারে।অনেকই ভার্জিন মেয়ে পছন্দ করে কিন্তু বেশিরভাগ ছেলেরা যৌ’নতার ব্যাপারে পটু অথচ ভার্জিন নয় এমন ম’হিলাদের পছন্দ করে। এক্ষেত্রে বৌদিরা অনেকটাই অভিজ্ঞ।তাই ছেলেরা বৌদিদের বেশি পছন্দ করে।

৫) বিবাহ: মেয়েরা ছেলেদের বারাংবার বিয়ের চা’প দিতে থাকে।নইলে অন্য ছেলের সঙ্গে বাড়ির লোকেরা বিয়ে দিয়ে দেয়।এবং সেইক্ষেত্রে মন ভাঙে ও অনেক য’ন্ত্রণা ভোগ করতে হয়।কিন্তু বৌদি অথবা বিবা’হিত ম’হিলাদের সঙ্গে প্রেম করলে এই ব্যাপারটি ঘটে না।

পু’রুষের গোপনাঙ্গ চুষতে চায় না যে কারণে বাংলাদেশের মে’য়েরা….

গোপনাঙ্গ/লিঙ্গ বা সোনা/ধোন চুষে দেওয়া (ব্লো-জব ) বেশ জনপ্রিয় হলেও আমাদের উপমহাদেশে তা জনপ্রিয় নয়। বিবৃতিঃ ভারতীয় উপমহাদেশের মে’য়েরা ব্লোজবে অভ্যস্ত না।

আবার অনেক মে’য়ে পু’রুষের গো’পনাঙ্গ / লিঙ্গ চোষাকে ঘৃণা করে। তাই জেনে নিন যেসকল কারণে মে’য়েরা পু’রুষাঙ্গ চুষে দিতে চায় নাঃ ১. অধিকাংশ পু’রুষকে মানতেই হবে যে, তাদের গোপনাঙ্গ অধিকাংশ সময় নোং’রা থাকে, ফলে পু’রুষাঙ্গ থেকে একধরণের দুর্গন্ধ বের হয়। যা মে’য়েরা মোটেও পছন্দ করে না।

২. অনেক মে’য়েই ব্লোজব করতে পারে না, কিন্তু পার্টনারকে সন্তুষ্ট করার জন্য তারা ব্লোজব করে থাকে। কিন্তু এর ফলে অনেক মে’য়েরই বমি বমি ভাব তৈরী হয়। ৩. অনেক পু’রুষের গোপনাঙ্গ / লিঙ্গ লম্বা থাকার কারণে অনেক মে’য়ে ব্লোজব করতে চায় না। এর কারণ হলো, পেনিসটা অনেক মে’য়েরই গ’লার ভেতর ঢুকে যায়, যা মে’য়েদের থ্রোটে আ’ঘাত করতে পারে।

৪. অনেক ছেলেই ব্লোজবের সময় নিজেকে নিয়’ন্ত্রণে রাখতে পারে না। ফলে মে’য়েটির মুখেই বী’র্যপাত করে ফে’লে। আর এটি অধিকাংশ মে’য়েই পছন্দ করে না।

৫. ব্লোজবে মে’য়েরা তেমন মজা পায় না। এর কারণ হলো, অনেক মে’য়েই এটি নোং’রা হিসেবে দেখে। তাছাড়া অনেক মে’য়েই ব্লোজবে ন্যাচারাল কিছু খুজে পায় না।

৬. অনেক মে’য়েই ছেলেটির স্বাস্থ্য নিয়ে সন্তুষ্ট থাকে না, ফলে মে’য়েদের ব্লোজবের ইচ্ছা কমে যায়। ৭. ব্লোজবের সময় অধিকাংশ ছেলেই মে’য়েটিকে সাদরে গ্রহণ করে না।

৮. অধিকাংশ ছেলেই ব্লোজব শেষে স’ঙ্গীনি মে’য়েটিকে বিনিময়ে তেমন মজা দিতে পারে না। কারণ, মে’য়েরাও চায় ছেলেরাও তাদেরট গোপনাঙ্গ (যো’নি) চুষুক। আর তখনই ঘটে বিপত্তি। কারণ, অনেক ছেলেই মে’য়েদের যো’নী চুষে দিতে চায় না। হয়তো একটু আঙ্গুল দেয়, কিন্তু মুখ দিতে চায় না