ভুলেও স্ত্রীর এই ৪ জায়গায় হাত দেবেন না, দিলেই মহাবিপদ।

নিজেকে সুস্থ রাখার জন্য শরীরের কিছু জায়গায় অহেতুক হাত দেয়া উচিত নয়। তবে সব সময় সেটা খেয়াল রাখা সম্ভব হয় না। ভুলবশত হাত চলে যায় সেসব স্থানে।

তবে এই অভ্যাস থাকলে পরবর্তী জীবনে ভুগতে হতে পারে, ডেকে আনতে পারে বিপদ। সে কারণে কখনো শরীরের এই জায়গাগুলোতে হাত দেবেন না ভুলেও।

প্রথমত চোখে হাত দেয়া থেকে বিরত থাকা দরকার। কারণ, আমাদের হাতে যে জীবাণু থাকে, সেগুলো চোখে গেলে বড় ধরনের ক্ষতি হওয়ার শঙ্কা রয়েছে। সুতরাং মুখ ধোয়া বা কন্ট্যাক্ট লেন্স পরার সময় ছাড়া চোখে হাত না দেয়া ভালো।

চোখের পরেই কান আমাদের শরীরের স্প র্শকাতর জায়গা। কানে বেশি হাত না দেয়া ভালো। অযথা অন্য কোনো জিনিস দিয়ে কান পরিষ্কারও করবেন না। এতে কানের পর্দা ছিঁড়ে যাওয়ার শঙ্কা থাকে।

আমাদের হাতে যেহেতু নানা রকম জী বাণু থাকে। চিন্তার সময় বা দিনের বিভিন্ন সময় মুখে হাত দিলে সেই জী বাণু সোজা পেটে চলে যাওয়ার আ শঙ্কা থাকে। যা ডেকে আনতে পারে মারাত্মক বিপদ। সে কারণে মুখে হাত ঢুকিয়ে দেয়া থেকে বিরত থাকতে হবে।

আরো পড়ুন
বয়স চল্লিশ হওয়ার পরও চেহারায় তারুণ্য ধরে রাখার ৫ উপায়

চল্লিশ বছর হলেই আমা’দের চেহারায় বাধ্যর্ক্যের ছাপ প’ড়ে যায়। শুধু নারীদেরই নয়, পু’রুষদেরও ত্বক থেকে তারুণ্য বিদায় নিতে শুরু করে। তাই ত্বকের যত্ন নেওয়া খুবই প্রয়োজন। না হলে অকালেই বুড়িয়ে যেতে হবে। এমন ৫ টি কৌশল আছে যেগু’লি ঠিক মতো মেনে চললে পঞ্চাশেও চেহারায় তারুণ্য ধরে রাখতে পারবেন।

বিভিন্ন ফলের রস ত্বকের জন্য খুব উপকারী। যেমন, গাজর, শসার রস, টোম্যাটো, কম’লাবেলুর মতো ফলের রস খেতে পারলে ত্বকের উজ্জ্ব’লতা বৃদ্ধি পায়। গোসলের আগে গোটা শ’রীরে অলিভ অয়েল মেখে নিতে

পারলে তা ত্বকের তারুণ্য ধ’রে রাখতে সাহায্য করে। পানিতে ভেজানো খেজুর ও ছোলা মিশিয়ে খেতে পারলে পেট থাকবে পরিষ্কার, ত্বক হয়ে উঠবে ঝকঝকে ও তারুণ্য ভরা।

পু’রুষদের চূড়ান্ত কর্মব্যস্ততার মধ্যেও ১৫ দিন অন্তর অ’ন্তত একবার ফেশিয়াল করা উচিত। না, তার জন্য পার্লারে যাওয়ার দরকার নেই। মধু ও লেবুর রস মিশিয়ে ত্বকে লা’গান। ১৫-২০ মিনিট রেখে ধুয়ে ফেলুন। বা মুলতানি মাটিতে সামান্য গো’লাপজল মিশিয়েও মুখে মাখিয়ে রাখু’ন। ১০-১৫ মিনিট রেখে ভাল করে ধুয়ে ফেলুন। উপকার পাবেন।

সকালে খালি পেটে এক গ্লাস হালকা উষ্ণ জলের সঙ্গে এক চামচ মধু আর লেবুর রস মিশিয়ে খেতে পারলে পেট থাকবে পরি’ষ্কার আর শরীর থাকবে ঝরঝরে। ত্বক হয়ে উঠবে উজ্জ্ব’ল ও মসৃণ। এই নিয়মগুলি মেনে চলতে পারলে সুফল পাওয়া যাবে। আপনার চেহারায় যৌ’বন হবে দীর্ঘস্থায়ী।