প্রতি ১০ জন না’রীর মধ্যে সাতজনই ম’জে পর’কী’য়ায়, স্বা’মীকে কেন ঠকাচ্ছেন ম’হিলারা? দেখু’ন বি’স্তারিত –

৩৪ থেকে ৪৯ বছরের ম’হিলাদের মধ্যে পর’কী’য়ায় জড়িয়ে পড়ার প্রবণতা বেশি।দশের মধ্যে সাতজন ম’হিলা স্বা’মীকে ঠকান। না, এটা আমাদের দাবি নয়। ত’থ্য পেশ করেছে ডেটিং অ্যাপ গ্লিডেন।

২০০৯-এ ফ্রান্সে লঞ্চ করেছিল এই অ্যাপ। ২০১৭ সাল থেকে ভা’রতে পথ চলা শুরু করেছিল গ্লিডেন। প্রায় পাঁচ লাখ ভা’রতীয় পুরু’ষ ও ম’হিলা এই মুহূর্তে গ্লিডেন অনলাইন ডেটিং অ্যাপ ব্যবহার করেন।

তাঁদের উপরই একটি সমীক্ষা চা’লিয়েছিল সংস্থাটি। আর তাতেই তাদের হাতে এসেছে কিছু চাঞ্চল্যকর ত’থ্য। সমীক্ষায় উঠে এসেছে, দশের মধ্যে সাতজন ম’হিলা পরপুরু’ষের স’ঙ্গে পর’কী’য়ায় মজে থাকেন।

কেন? কেউ বলেছেন, স্বা’মীকে বাড়ির কোনও কাজে তাঁরা প্রয়োজনমতো পান না। কারও বক্তব্য, দীর্ঘদিনের দাম্পত্য জীবন নিরস হয়ে পড়েছে। আলাদা কোনও উত্তে’জনা তাঁরা আর বিবা’হিত জীবন থেকে পাচ্ছেন না। তাই পর’কী’য়ায় জড়িয়ে পড়ছেন তাঁরা।

চ’মকে দেওয়ার মতো আরও রয়েছে। গ্লিডেন-এর পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, বেঙ্গালুরু, মুম্বই ও কলকাতা, এই তিন শহরের ম’হিলারা সব থেকে বেশি পর’কী’য়ায় জড়িয়ে পড়ছেন।

গ্লিডেন বলছে, ১০ এর মধ্যে চারজন ম’হিলা দাবি করেছেন যে পরপুরু’ষের স’ঙ্গে স’ম্পর্কে জড়িয়ে পড়ার পর তাঁদের স্বা’মীর স’ঙ্গে স’ম্পর্কের বুনিয়াদ আরও মজবুত হয়েছে।

পাঁচ লাখ গ্লিডেন ইউজার-এর মধ্যে ২০ শতাংশ পুরু’ষ ও ১৩ শতাংশ ম’হিলা পর’কী’য়ায় জড়ানোর কথা সরাসরি স্বীকার করে নিয়েছেন। সমীক্ষায় দেখা গিয়েছে, ৩৪ থেকে ৪৯ বছরের ম’হিলাদের মধ্যে পর’কী’য়ায় জড়িয়ে পড়ার প্রবণতা বেশি।

পাঁচ লাখ ইউজার-এর মধ্যে ৭৭ শতাংশ ম’হিলা জানিয়েছেন, দাম্পত্য জীবন নিরস হয়ে যাওয়াই তাঁদের পর’কী’য়ায় জড়িয়ে পড়ার অন্যতম কারণ। বিবা’হিত জীবনের বাইরে একজন স’ঙ্গী খুঁজে পাওয়ার মধ্যে তাঁরা আলাদা উত্তে’জনা অনুভব করছেন বলেও দাবি করেছেন।