বাবা-মা বাইরে বের হতে পারলেও ঘুমের মধ্যেই পু’ড়ে গেছে নববিবাহিত ছেলে-পুত্রবধূ

পিরোজপুরের মঠবাড়িয়ায় বসতঘরে ভ’য়াব’হ অ’গ্নিকা’ণ্ডে আগুনে পুড়ে এক নবদম্পতির মৃ’ত্যু হয়েছে। শনিবার দিবাগত রাত সাড়ে তিনটার দিকে পৌর শহরের কলেজপাড়া আবাসিক এলাকায় এ অ’গ্নিকা’ণ্ডের ঘটনা ঘটে।

এ সময় আগুনে পুড়ে মো. সাইফুল ইসলাম (২৫) ও তার নব বিবাহিত স্ত্রী মনিরা আক্তার (১৮) মৃ’ত্যু হয়। নি’হ’ত সাইফুল ইসলাম উপজেলার হারজী নলবুনীয় গ্রামের গ্রামের মো. বারেক হাওলাদারর ছেলে। পুলিশ আজ রবিবার সকালে নি’হ’ত দম্পতির লা’শ উ’দ্ধার করেছে।

থানা ও স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, উপজেলার হারজী নলবুনীয়া গ্রামের মো. সাইফুল ইসলাম গত সাত মাস আগে বিয়ে করেন। গত একবছর ধরে সাইফুল পৌর শহরে কলেজপাড়া এলাকায় মহসেন উদ্দিনের ভাড়া বাসায় থেকে ভা’ড়ায়চালিত অটোরিকশা চালাতেন। শনিবার রাতে ওই ভাড়া বাসায় তার বাবা বারেক হাওলাদার, মা রুপিয়া বেগম, ছোটভাই শহীদুল ইসলাম ও তার শ্যালক রাকিব রাতের খাবার শেষে ঘুমিয়ে পড়েন।

রাত অনুমান সাড়ে তিনটার দিকে বৈদ্যুতিক শর্টসার্কিট থেকে বসতঘরে অ’গ্নিকা’ণ্ডের সূত্রপাত ঘটে। আ’গু’ন ছ’ড়িয়ে পড়লে বাসার নিচে ঘুমিয়ে থাকা সাইফুলের বাবা-মা, ভাই ও ভাইয়ের শ্যালক বাইরে বের হয়ে যান। তবে বাসার দোতলায় ঘুমিয়ে থাকা সাইফুল ও তার নব বিবাহিতা স্ত্রী মনিরা ঘরে আ’টকা পড়ে। ফায়ার সার্ভিস খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে এসে স্থানীয়দের সহায়তায় দুই ঘণ্ট চেষ্টা চালিয়ে আ’গুন নিয়ন্ত্রণ করে। পরে সেখান থেকে পুলিশ আ’টকে পড়া নবদ’ম্পতির লা’শ উ’দ্ধার করে।

মঠবাড়িয়া ফায়ার স্টেশন কর্মকর্তা মো. সুমন মিয়া বলেন, বৈদ্যুতিক শর্টসার্কিট থেকে এ অ’গ্নিকা’ণ্ডের সূত্রপাত ঘটেছে। অ’গ্নিকা’ণ্ডে বাসা, গাড়ি ও মালামালসহ ৩৪ লাখ টাকার ক্ষ’য়ক্ষ’তি হয়েছে বলে প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে। মঠববাড়িয়া থানার ওসি মো. মাসুদুজ্জামান ঘটনা নিশ্চিত করে জানান, দুজনের লা’শ উ’দ্ধার করে জেলা ম’র্গে পাঠানো হয়েছে। এ ঘটনায় মঠবাড়িয়া থানায় একটি অপমৃ’ত্যু মা’ম’লা দায়ের হয়েছে।