টানা ৫ দিন কমল দাম, ৪৬,০০০ টাকা ঘরের থাকল সোনা, উর্ধ্বমুখী রুপো

বিশ্ব বাজারের রেশ ধরে টানা পাঁচদিন ভারতে পড়ল সোনার দাম। বুধবার ভারতীয় বাজারে এমসিএক্স সূচকে ১০ গ্রাম

গোল্ড ফিউচার্সের দাম ০.২৭ শতাংশ কমে দাঁড়িয়েছে ৪৬,৭৭২ টাকা। তার ফলে প্রায় আট’ মাসের সর্বনিম্ন দামের

স্তরের কাছাকাছি পৌঁছে গিয়েছে। তবে কিছুটা বেড়ে এক কিলোগ্রাম সিলভার ফিউচার্সের দাম পড়ছে ৬৯,৫৩৫ টাকা।

বাজেটে কয়েকটি সোনার আম’দানি শুল্কে কাটছাঁট এবং বিশ্ব বাজারের প্রবণতার ধা’রার ফলে ভারতে কমছে হলুদ

ধাতুর দাম। গত বছর অগস্টে ১০ গ্রাম সোনার দর রেকর্ড ৫৬,২০০ টাকায় পৌঁছে গিয়েছিল। তারপর থেকে সোনার

দাম অনেকটা নীচে নেমে গিয়েছে। মোটামুটি একটা স্তরের মধ্যেই ঘোরাফেরা করছে হলুদ ধাতুর দর। রেকর্ড দরের থেকে বেশ খানিকটা পিছিয়ে আছে সোনা।

একইস’ঙ্গে চা’ঙ্গা ডলারের মধ্যে বিশ্ব বাজারে সোনার দর প্রায় দু’স’প্ত াহের সর্বনিম্ন স্তরে নেমে গিয়েছে। এক

আউন্স স্পট গোল্ডের দাম ০.২ শতাংশ কমে হয়েছে ১,৭৯১.৩৬ ডলার। এক আউন্স রুপোর দামও ০.১ শতাংশ

কমেছে। তার ফলে আউন্সপিছু রুপোর দর পড়ছে ২৭.২ ডলার। কোটাক সিকিউরিটিজের তরফে জানানো হয়েছে, মা’র্কিন ডলারের থেকে অনেকাংশে প্রভাবিত হযেছে সোনা।

উল্লেখ্য, গত সোমবার অক্সফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয় এবং অ্যাস্ট্রোজেনেকার টিকার জরুরি ভিত্তিতে ব্যবহারের অনুমোদন

দিয়েছে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (হু)। সংক্রমণের হার কমে যাওয়ায় বিশ্বের কয়েকটি প্রান্তে লকডাউনও শিথিল করা হয়েছে।

তার ফলে ঝুঁকি নেওয়ার প্রবণতা বেড়েছে। কোটাক সিকিউরিটিজের তরফে আগেই জানানো হয়েছিল, করো’নাভাইরাস পরিস্থিতির উন্নতির পাশাপাশি মা’র্কিন আর্থিক প্যাকেজের আশায় বাজারের আকাঙ্ক্ষা বাড়ছে।