দেশের বাজারে স্বর্ণের নতুন দাম নির্ধারণ করলো বাজুস

দেশের বাজারে আবারও নতুন করে কমেছে সোনার দর। বাংলাদেশ জুয়েলার্স সমিতি (বাজুস) মঙ্গলবার সোনার দাম কমানোর এই নতুন ঘোষণা দেয়। নতুন ঘোষণা অনুযায়ী দেশের বাজারে প্রতি ভরি সোনার দাম কমানো হয়েছে ১১৬৬ টাকা।

গতকাল বাজুসের সভাপতি এনামুল হক খান ও সাধারণ সম্পাদক দিলীপ কুমা’র আগরওয়ালা স্বাক্ষরিত এক বি’জ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়েছে। এর ফলে এক সপ্তাহেরও ক ব্যবধানে দ্বিতীয়বার দেশের বাজারে সোনার দর কমলো। যেখানে সর্বমোট দাম কমেছে ৩ হাজার ৬৭৩ টাকা।বাজুস থেকে প্রকাশিত বি’জ্ঞপ্তি অনুযায়ী সোনার দর কমা’র কারন হিসেবে জানানো হয়েছে,

করো’নার দ্বিতীয় ঢেউ মোকাবিলায় শঙ্কিত বৈশ্বিক অর্থনীতি, ডলার ও তেলের দরপতন, আন্তর্জাতিক ও দেশীয় স্বর্ণবাজারে দামের উত্থান-পতন সত্ত্বেও এক সপ্তাহের মধ্যে টানা দ্বিতীয়বারের মতো বাজুসের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী বুধবার (২ ডিসেম্বর) থেকে বাংলাদেশের বাজারে স্বর্ণের দাম ভরিপ্রতি ১ হাজার ১৬৬ টাকা কমানো হলো।

এদিকে সোনার দাম তানা কমতে থাকলেও কমানো হয়নি রুপার দাম। গত ২৫ নভেম্বর যখন সোনার দাম কমানো হয়েছিল তখনও রুপার দাম ছিল অ’পরিবর্তিত। এবারও সে একই ঘটনার পুনরাবৃত্তি হল।নতুন করে বেধে দেয়া দাম অনুযায়ী বুধবার (২ ডিসেম্বর) থেকে ২২ ক্যারেটের প্রতি ভরি সোনা ক্রয়ের ক্ষেত্রে গ্রাহককে গুনতে হবে ৭২ হাজার

৬৬৭ টাকা। ২১ ক্যারেটের প্রতি ভরি সোনার দাম নির্ধারন অরে দেয়া হয়েছে ৬৯ হাজার ৫১৭ টাকা। এর থেকে বেশ খানিকটা কমে পাওয়া যাবে ১৮ ক্যারেটের এক ভরি সোনা। ১৮ ক্যারেটের এক ভরি সোনা হাতবদল হতে খরচ করতে হবে ৬০ হাজার ৭৬৯ টাকা। সনাতন পদ্ধতিতে তৈরি প্রতি ভরি সোনার দাম বেধে দেয়া হয়েছে ৫০ হাজার ৪৪৭ টাকা।

রুপার দাম আগের মতই বহাল রয়েছে। ১৫১৬ টাকায় ২২ ক্যারেটের প্রতি ভরি রুপার দাম নির্ধারন করা হয়েছে। ২১ ক্যারেটের ক্ষেত্রে প্রতি ভরি রুপার দাম ধ’রা হয়েছে ১৪৩৫ টাকা। ১২২৫ টাকায় বিক্রি হচ্ছে ১৮ ক্যারেটের এক ভরি রুপা এবং সনাতন পদ্ধতিতেত তৈরি এক ভরি রুপার দাম রয়েছে ৯৩৩ টাকা।