বাড়িওয়ালার স্ত্রীকে নিয়ে পা’লি’য়ে গেলেন ছে’লে, মা-বা’বা ও ছো’টবো’নকে গ’ণপি”টু’নি

নারায়ণগঞ্জের ফতুল্লায় ভাড়া বাসার বাড়িওয়ালার স্ত্রী’র স’ঙ্গে প”রকীয়ার অ’পরাধে খাদেমুল ইসলাম নামে এক ত’রুণের মা-বাবা ও ছোট বো’নকে গণপি’টুনি দিয়ে পুলিশে দিয়েছেন এ’লাকাবাসী। এরপর তাদেরকে গ্রে”ফতার দেখিয়ে আ’দালতের মাধ্যমে কা’রাগারে পাঠানো হয়েছে।

বুধবার (২৪ ফেব্রুয়ারি) রাতে ফতুল্লার মু’সলিমনগর নয়াবাজার এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। গ্রে”ফতারকৃতরা হলেন খাদেমুল ইসলাম (২০), তার বাবা আবেদুল ইসলাম (৪২), মা খাজিদা বেগম (৪০) ও ছোট বোন মুক্তা বেগম (১৯)।

ফতুল্লা মডেল থানার ওসি আসলাম হোসেন গণমাধ্যমকে জানান, ওই এলাকার মামুন নামে একজনের বাড়িতে ভাড়া থাকতেন খাদেমুল ও তার পরিবার। দীর্ঘদিন ভাড়া থাকায় বাড়িওয়ালার স্ত্রী’র স’ঙ্গে প’রকীয়া স’ম্পর্ক গ’ড়ে ও’ঠে খাদেমুলের। ৩ থেকে ৪ মাস আগে বাড়িওয়ালা বি’ষয়টি বুঝতে পেরে ঘর ছে’ড়ে দিতে বললে তারা পাশের বাড়িতে ভাড়া যান।

তিনি আরও জানান, বাড়িওয়ালার স্ত্রী ও তার আড়াই বছরের শি’শুকে নিয়ে মঙ্গলবার (২৩ ফেব্রুয়ারি) রাতে পা’লিয়ে যায় প্রে’মিক খাদেমুল। বি’ষয়টি খাদেমুলের মা-বাবা ও বো’নকে জানান ওই বাড়িওয়ালা মামুন। খাদেমুলের পরিবার ঘটনা জেনেও তা অ’স্বীকার করে পরদিন বুধবার রাতে সবাই পা’লানোর চে’ষ্টা করেন। এ সময় এ’লাকাবাসী তাদের আ’টকে জি’জ্ঞাসাবাদ করলে তারা একেক সময় একেক কথা বলায় মা’রধ’র করে পুলিশকে খবর দেয়।

পরে তাদের দেওয়া তথ্যমতে খাদেমুলকে ফতুল্লার বক্তাবলী থেকে গ্রে”ফতার করা হয়। এসময় উ’দ্ধার করা হয় মামুনের স্ত্রী ও শি’শুকে।

এ ঘটনায় বাড়িওয়ালা মামুন ওই পরিবারের ৪ জনের বি’রু’দ্ধে মা”মলা দা’য়ের করেন। যার প্রেক্ষিতে গ্রে’ফতার দেখিয়ে আ’দালত তাদের কা’রাগারে পাঠায় পুলিশ।