টিকা ছাড়া হজ নয়ঃ সৌদি

হজ ইসলাম ধর্মাবলম্বী অর্থাৎ মুসলমানদের জন্য একটি আবশ্যকীয় ইবাদত বা ধর্মীয় উপাসনা। এটি ইসলাম ধর্মের চতুর্থ স্তম্ভ। শারীরিক ও আর্থিকভাবে সক্ষম প্রত্যেক মুসলমান নর-নারীর জন্য জীবনে একবার হজ সম্পাদন করা ফরজ বা আবশ্যিক।

আরবি জিলহজ মাসের ৮ থেকে ১২ তারিখ হজের জন্য নির্ধরিত সময়। হজ পালনের জন্য বর্তমান সৌদি আরবের মক্কা নগরী এবং সন্নিহিত মিনা, আরাফাত, মুযদালিফা প্রভৃতি স্থানে গমন এবং অবস্থান আবশ্যক। এটি পৃথিবীর বাৎসরিক তীর্থযাত্রা।

পবিত্র মক্কা নগরীতে প্রতি বছর সমগ্র পৃথিবীর ধর্মপ্রান মুসলমান হজের উদ্দেশ্যে জমায়েত হন। যারা হজ করতে সৌদি আরব যেতে চান, তাদের জন্য করোনা ভ্যাকসিন বাধ্যতামূলক করেছে দেশটির সরকার। এটা স্পষ্ট যে, টিকা ছাড়া হজ নয়

সৌদি আরবের স্বাস্থ্যমন্ত্রী তৌফিক আল-রাবিয়া বলেছেন, মহামারি করোনার সময়ে সামনের হজ পালনে ইচ্ছুকদের অবশ্যই করোনার টিকা নিতে হবে। গতকাল সোমবার সেদেশের স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের নিয়মিত প্রেস ব্রিফিংয়ে এই তথ্য জানান তিনি। খবর আরব নিউজের।

আল-রাবিয়া আরও জানান, পবিত্র হজ আয়োজনে এই মহামারির সময়ে সৌদি সরকার সব প্রস্তুতি নিয়েছে। হজ ব্যবস্থাপনার যাতে কোনও ত্রুটি না হয় সেজন্য মদিনার স্বাস্থ্য খাতে প্রয়োজনীয় জনবল নিয়োগ প্রক্রিয়া শুরু হয়েছে বলেও জানান তিনি।

উল্লেখ্য, করোনার কারণে গত বছরের ২৮ ফেব্রুয়ারি থেকে ওমরাহ বন্ধ করে দেয় সৌদি সরকার। দীর্ঘ ৮ মাস বন্ধ থাকার পর গত বছরের ৪ অক্টোবর থেকে কঠোর নজরদারি ও স্বাস্থ্যবিধি মেনে ফের ওমরাহ পালন শুরু হয়।