যে যে কারনে বৌ’দিদের প্রতি আ’কৃ’ষ্ট হয় কম ব’য়সী ছেলেরা…

নিজের থেকে বয়েসে বড় ম’হিলা বা বৌদিদের প্রেমে পড়ছে এখনকার যুবকরা। বিশেষ করে বৌদিদের প্রতি বেশি আকৃ’ষ্ট হচ্ছে এবং একটা সম্প’র্ক তৈরি করার প্রবণতাও জাগছে তাদের মধ্যে।

এখন তো আবার প’রকীয়াও বৈধ হয়ে গেছে, যার কারনে বৌদিদের প্রতি আকর্ষণ কম বয়েসি ছেলেদের মনে বেড়েই চলেছে। চলুন দেখে নেওয়া যাক সেই সব কারন যার জন্য ছেলেরা বৌদিদেরকে বেশি পছন্দ করে –

অ’ভিজ্ঞতা – সাধারণ মে’য়েদের চেয়ে বিবা’হিত ম’হিলারা অনেক বেশি অভিজ্ঞ এবং তারা ছেলেদের সমস্যা সমাধানের চেষ্টা করে। তাছাড়া ছেলেদের চাওয়া পাওয়া সবকিছুর উপর গুরুত্ব দেয়।

অন্যদিকে কমব’য়সী মে’য়েরা আবেগ তাড়িত হয়ে ছেলেদের জীবনে প্রায়ক্ষেত্রে নানা সমস্যা তৈরি করে থাকে। শুধু নিজেরটা ভাবে, ছেলেদের খুশী ও চাওয়া-পাওয়ার দিকে তেমন খেয়াল করে না, যত্ন নেয় না।

বিবাহ – অন্য ছেলের স’ঙ্গে বাড়ির লোকেরা বিয়ে দিয়ে দেবে, এই বলে ছেলেদের বারাংবার বিয়ের চা’প দিতে থাকে কম ব’য়সী মে’য়েরা এবং সেইক্ষেত্রে মন ভাঙে ও অনেক য’ন্ত্রণা ভোগ করতে হয়।

কিন্তু এই সমস্ত ঝামেলা থাকে না বৌদি অথবা বিবা’হিত ম’হিলাদের স’ঙ্গে প্রেম করলে। ম্যাচিউরিটি ও ব’য়স – ২০ থেকে ২৫ বছর ব’য়সের মে’য়েরা দেখতে সুন্দর, তাদের চেহারার সুডৌল গঠন সবাইকে আকর্ষন করে। রোমান্সের অনুভূতি থাকে তাদের মধ্যে।

প্রথম সম্প’র্কে আসা মে’য়েকে অনেক কিছু শেখাতে হয়। কিন্তু এক্ষেত্রে বৌদিরা খুব পটু হয়। তারা জানে একটা ছেলে তার কাছ থেকে কি চায়?

কেন তার স’ঙ্গে সম্প’র্ক করতে চাইছে। নেকামি – কম বয়েসি মে’য়েরা প্রেমের দিক দিয়ে একটু ন্যাকা হয়, কোন জায়গায় কোন কথা বলতে হবে তার কোনো ধারনা থাকে না।

অপরদিকে বৌদিরা চট করেই ছেলেদের মনে কি চলছে বুঝতে পারে এবং ন্যাকামি একদম করেনা। সঠিক স্থানে সঠিক কথা বলার সুস্পষ্ট ধারনা রয়েছে তাদের। যার জন্যে কম বয়েসি ছেলেরা বেশি বিবা’হিত ম’হিলাদেরকেই পছন্দ করে।

যৌ-নতা – এক্ষেত্রে ছেলেরা ভারজিন মে’য়ের থেকে অভিজ্ঞ নারিদের বেসি পছন্দ করে এবং বৌদিরা সেই তালিকার অন্তরভুক্ত, তাই তাদের প্রতি আকর্ষণটাও বেশি থাকে ছেলেদের।